fbpx
ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার নেয়ার ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো দেখতে হবে!

ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার নেয়ার ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো দেখতে হবে!

ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যারের ৫টি বিশেষ সুবিধাঃ

১. নিজে হিসাব নিকাশের ঝামেলা নেই। অটোমেটিক নির্ভুল হিসাব থাকবে
২. সকল পন্যের স্টিক/পরিমান, আয় ব্যায়ের হিসাব নিকাশ রাখা সহজতর।
৩. কর্মীরা প্রতারণার সুযোগ পাবে না
৪. একজন ম্যানেজার যা যা করবে, একটি বিজনেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম তার চেয়েও বেশী কিছু করতে পারবে।
৫. সময় সাশ্রয়ী

*সুতরাং বলা যায়, ব্যবসাকে স্মার্টভাবে পরিচালা করে টিকিয়ে রাখতে ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের বিকল্প নেই।


একসময় ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম হিসেবে মুলত শুধুমাত্র ডেস্কটপ সফটওয়্যারই ব্যবহৃত হতো। কিন্ত ধীরে ধীরে অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম/প্ল্যাটফর্মেও প্রচলন শুরু হয়। এরপরই ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

অনেকের কথা ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন আবার কি? এটাও মুলত এক ধরণের ওয়েবভিত্তিক সফটওয়্যার বা সিস্টেম যেটার জন্য কোনো সফটওয়্যার বা অ্যাপ ইনস্টল করতে হবে না। আপনার নিজস্ব ওয়েব সার্ভারে সিস্টেমটি সেটাপ করবেন এবং ক্লাউড কম্পিউটিং এর মাধ্যমে আপনি যেকোনো সময় যেকোনো ডিভাইস থেকে ওয়েব এড্রেসে গিয়ে সিস্টেমটি ব্যবহার করবেন। ঠিক ফেইসবুকের ওয়েবসাইটে যেমন একাউন্ট করলে সেটা যেকোনো সময় যেকোনো ডিভাইসে লগিন করা যায় এবং কোনো ডাটা/ম্যাসেজ/পোস্ট হারায় না, এখানেও সেইম। ফলে আপনার কম্পিউটার সাময়িকভাবে নষ্ট থাকলে/না থাকলেও আপনার কোনো ডাটা হারানোর ভয় নেই। তবে ইন্টারনেট নির্ভর এসব সিস্টেমের অসুবিধা একটাই। ইন্টারনেট না থাকলে কিছুই করা যায়না। তবুও রক্ষনাবেক্ষন, নিরাপত্তা, ব্যবহার সহ সব দিক বিবেচনা করলে ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ভিত্তিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমই সুবিধাজনক।

ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহারেঃ

  • আপনার ব্যবসায়ের সকল হিসাবই ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে থাকে। এখানে যতটা গুরুত্বপূর্ণ এগুলোকে নিজের নিয়ন্ত্রনে রাখা তার চেয়েও বেশী গুরুত্বপূর্ণ নিরাপদ এবং একান্তই গোপন রাখা। কারন সিস্টেমে আপনার আয়-ব্যায়ের হিসাব, ক্লায়েন্টদের তথ্যসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ই থাকবে। একবার ভেবে দেখুন, যদি এমন হয় অন্যান্যরা আপনার সব তথ্য হ্যাক/চুরি করতে পারছে, বা তৃতীয় কোনো পক্ষ তথ্যগুলো দেখে অন্যদের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে অথবা সবগুলো হিসাব-নিকাশ এবং তথ্যই হটাৎ ডিলেট হয়ে গিয়েছে, কেমন অবস্থা হবে? তখন তো স্মার্টভাবেই বড় ধরণের ক্ষতির সম্মুখীন হবেনঅনেক ওয়েব হোস্টিং প্রোভাইডার আছে যারা খরচ কমানো/অতিরিক্ত লাভের জন্য উপরোক্ত কাজ তো করেই, পাশাপাশি বিভিন্ন ক্রাক সফটওয়্যার সার্ভারে ব্যবহার করে। যেগুলোতে ম্যালওয়্যার থাকার ঝুকি থাকে এবং বিভিন্ন কারণে ক্লায়েন্টদের একাউন্ট/সাইট হ্যাক হবার সম্ভাবনা থাকেই। একবার ভেবে দেখেন তো, আপনি কষ্ট করে সাইটে এত কিছু রাখলেন, ডিজাইন করলেন হটাত করে যদি দেখেন সব অন্যদের হাতে চলে গেলো, আপনার সব কিছু কেউ একজন ডিলেট করে ফেলেছে, তখন কি হবে?

এখন হয়ত ভাবছেনঃ

  • আমরা যদি অনলাইন সফটওয়্যার না নিয়ে অফলাইন সফটওয়্যার নেই, তাহলেই তো হয়? কোনোভাবেই কেউ তথ্য চুরি করতে পারবেনা! সফটওয়্যার নির্মাতার যদি ইচ্ছা থাকে, তাহলে আপনি অফলাইন সফটওয়্যার ব্যবহার করলেও সে সকল তথ্যই চুরি করতে পারবে। বরং যেসব সফটওয়্যার কম্পিউটারে ইনস্টল করতে হয়, সেগুলো দিয়ে ডেভেলপাররা আপনার ফেইসবুক একাউন্ট, ব্যাংক একাউন্ট, গুগল একাউন্ট সহ বিভিন্ন একাউন্টও হ্যাক করতে পারে। আসলে অফলাইন সফটওয়্যার অনেক আগে একসময় চলনসই ছিল। কিন্ত বর্তমানে অফলাইন সফটওয়্যারের ব্যবহার দিন দিন কমে যাচ্ছে। কারণ অফলাইন সফটওয়্যারে অনেক সুযোগ সুবিধা পাওয়া যায় না। আবার হটাৎ করে কম্পিউটারের হার্ড ডিস্ক নষ্ট হয়ে গেলেও সব তথ্য হারিয়ে যায়। তাই বর্তমান সময়ে এশে অফলাইন সফটওয়্যার ফ্রী পেলেও ব্যবহারের কোনো যৌক্তিকতা নেই।

কিভাবে বুঝব কোনটা ভালো? কাদের কাছ থেকে নিব?

বর্তমানে বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে অল্প কয়েকটি কোম্পানিই নিজেদের মত করে এই সিস্টেমগুলো বানিয়ে ব্যবহার করার সামর্থ রাখে। কারণ এই ধরণের সিস্টেম তৈরি করাটা যথেষ্ট সময় সাপেক্ষ এবং ব্যয়বহুল। কিন্ত এই খরচটা কমানো যায়, রেডিমেড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করে। একটি নির্দিষ্ট ডিজাইন এবং ফাংশনালিটির সিস্টেম অনেককে ব্যবহারের জন্য বার বার তৈরি করে দেয়া হয়। এতে সময় ও শ্রম তুলমুলকভাবে অনেক কম লাগে।

রেডিমেড সিস্টেমগুলো নেয়ার আগে একবার যাদের কাছ থেকে নিচ্ছেন, কথা বলে/দেখে নিবেন যে সেই সিস্টেমটি আপনার ব্যবসার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা। দেখে নিবেন আপনার যা যা সুবিধা প্রয়োজন তার প্রায় সবকিছুই আছে কিনা, এবং সফটওয়্যারটা অনলাইন সুবিধা, একাধিক ব্যবহারকারী, কর্মীদের জন্য আলাদা একাউন্ট এর সুবিধা আছে কিনা। মাসিক/বাতসরিক চার্জ কেমন? এবং তাদের সাপোর্ট/ব্যবহার কেমন। যদি আপনার কাছে বিষয়গুলো সন্তোষজনক লাগে, তাহলে সব কিছু বিবচনা করে সিস্টেম নিয়ে ব্যবহার করবেন।

অবশ্যই মাথায় রাখতেই হবেঃ

ফেইসবুকে নামে বেনামে অনেক প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনই দেখা যায়। যেমনঃ “ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম মাত্র * টাকায়। লাইফটাইম। সময় সীমিত”। আপনাদেরকে একটু আগে বলা হয়েছে রেডিমেড সিস্টেমের খরচ অনেক কম হয়। কিন্ত এর মানে এমন নয় যে কয়েকশত টাকায় পাওয়া যায়। মাথায় রাখতে হবে, এটা সেবা। এটা কোনো পণ্য না যে একবার কিনলেই আপনার ঝামেলা শেষ! তাই এই ধরণের সার্ভিস নেয়ার আগে দেখতে হবে যাদের কাছ থেকে নিচ্ছেন তারা কতটুকু বিশ্বস্ত এবং তারা টিকে থাকতে পারবে কিনা।

মেইন কথা হচ্ছে

ফেইসবুকে কোম্পানির নাম বা বিজ্ঞাপন দেখেই ঝাপটে পরবেন না। অনেক ফেইসবুক পেইজ আছে যাদের প্রকৃত কোনো কাগজপত্র বা ঠিকানাই নাই, কিন্ত অনলাইনে কোনোরকমে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ফলশ্রুতিতে, তারা কোনোরকম প্রতারণা করলে, বা হটাৎ উধাও হয়ে গেলে, সবার ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যাচ্ছে। এই ধরণের সার্ভিস নেয়ার আগে, টাকার বিষয়টি না দেখে মানস্মমত কিনা এবং কতটুকু বিশ্বস্ত তা দেখুন। অন্যথায় সুবিধা পাওয়ার চেয়ে, ক্ষতির সম্ভাবনা অনেক বেশী।

আমরা আপনাকে কিভাবে সহযোগীতা করতে পারি?

বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত কোম্পানি আইটি বন্ধু লিমিটেড মানসম্মত সেবার জন্য স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠান এবং তারকারাও আমাদের উপর আস্থা রাখে এবং সার্ভিস ব্যবহার করে। যেকোনো ধরণের ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম, ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েব হোস্টিং, ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন সহ অন্যান্য আইটি সেবার জন্য কল করুন আমাদের হটলাইন নাম্বারে: 01938001000

About the Author
IT Bondhu Limited IT Bondhu Limited
IT Bondhu Limited is a company that provides IT solutions, edu-tech, training, e-commerce, selling products and services both online and offline. IT Bondhu Limited Provides better IT Solutions like Ultra Fast Web Hosting, App & Website Development, Domain Ragistration, Graphic Design, Digital Marketing etc.
Call Now Button