fbpx
ডোমেইন রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে সাবধান! আগে এই বিষয়গুলো জেনে নিন

ডোমেইন রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে সাবধান! আগে এই বিষয়গুলো জেনে নিন

ডোমেইন নামই ওয়েবসাইটের মেইন পরিচয় বা ঠিকানা। একটি ডোমেইনই মুলত কোম্পানির ইউনিক, ডিজিটাল এবং স্মার্ট পরিচয় যা অত্যন্ত বোধগম্য। যেমনঃ itbondhu.com
কোনো একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে প্রথমেই ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। সচরাচর রেজিস্ট্রেশন করার সময় সবাই ১ বছর পর্যন্ত মেয়াদ পায় এবং ডোমেইন নামটির মালিকানা ধরে রাখতে একটা নির্দিষ্ট পরিমান রিনিউয়াল/নবায়ন ফী দিতে হয়। যেকোনো সময় অগ্রীম পেমেন্ট করে কয়েক বছর পর্যন্ত মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে পারে। নামের শেষে যেই এক্সটেনশন লাগানো থাকবে (যেমন .com, .net, .org, .xyz etc) সেটার উপরই রেজিস্ট্রেশন চার্জ এবং রিনিউয়াল খরচ নির্ভর করে।

প্রতিষ্ঠানের নামে প্রফেশনাল/বিজনেস মেইলও ডোমেইন নামের উপরই নির্ভরশীল। যেমনঃ [email protected]

কোম্পানির ডোমেইন ব্যাংক একাউন্টের একটি খালি চেকে সাক্ষর করে আমানত রাখার মত। ব্যাংকে টাকা রাখার মতই ডোমেইনও এক ধরণের আমানত যেটা আপনার সার্ভিস প্রোভাইডারের কাছে গচ্ছিত থাকে।

নিশ্চয়ই আপনার ওয়েবসাইট বানানোর পর আপনি আপনার কোম্পানির সকল যায়গায় ওয়েবসাইট ঠিকানা ব্যববার করবেন। এমনকি বিজনেস মেইল ও ব্যবহার করবেন। দেখা যাবে, আপনার ব্যবসার নামের পরিচিতির জন্য হয়ত কয়েক লাখ টাকাও খরচ করবেন। “এর কয়েক মাস/বছর পর হটাত করে যদি দেখেন আপনার ওয়েবসাইটের নাম দিয়ে অন্য কেউ ব্যবসা করছে? অন্য কারও ব্যবসার তথ্য দেখায়? মানে আপনার কোম্পানির ডোমেইনের মালিকানা অন্য কেউ কিনে নিয়েছে!”

সমস্যাটা কি ভাই?

বাংলাদেশে অনেকেই কম খরচে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন সার্ভিস দিয়ে থাকে। কিন্ত সমস্যা টা কম দাম নিয়ে নয়, সমস্যা টা সেবায় এবং বাটপারিতে। হয়ত ওই প্রতিষ্ঠান গুলো একেবারেই কম প্রফিটে ডোমেইন সম্পর্কিত সেবা দিয়ে থাকে, কিন্ত তাদের সেবা নিয়ে অনেকেই বিপদে আছে।

  • ১। অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে, কম খরচের আশায় যখন নামে বেনামে প্রতিষ্ঠানের কাছ ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করা হয়, তখন তারা তাদের নিজেদের ইমেইল ও পরিচয় দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে দেয় এবং ক্লায়েন্টকে ডোমেইন ব্যবহারের এক্সেস দেয়। কিন্ত প্রধান এক্সেস দেয়না। অর্থাৎ আসল নিয়ন্ত্রন এবং মালিকানা আইটি কোম্পানির কাছেই থাকে। ফলে যেকোনো সময় তারা ক্লায়েন্টকে বিভিন্ন উদাহরণ ও সমস্যা দেখিয়ে টাকা দাবি করতে পারে।
  • ২। ডোমেইনের দাম যেহেতু দিন দিন বাড়তে থাকার সম্ভাবনা থাকে, কারও কাছে নাম ভালো লাগলে কেনার জন্য প্রস্তাবও করতে পারে। তাই কিছু ডোমেইনের জন্য ভালো সুযোগও পাওয়া যায়। তখন সার্ভিস প্রোভাইডার কারও সাথে যোগাযোগ না করেই ভালো দামে বিক্রি করে দেয়।
  • ৩। আরেক ধরণের সার্ভিস প্রোভাইডার আছে যারা আপনার তথ্য দিয়েই রেজিস্ট্রেশন করে দিবে কিন্ত তারা সময়মত সার্ভিস দিবে না। ফলে দেখা যাবে আপনার ডোমেইন রেজিস্ট্রেশনের পরবর্তীতে রিনিউ করতে সমস্যা হতে পারে। ফলশ্রুতিতে আপনার ডোমেইন অন্য কেউ রেজিস্ট্রেশন করে নেয়ার ঝুকি থাকে। এবং মালিকানা পরিবর্তনেরও সম্ভাবনা থাকে।

ডোমেইনের আসল মালিকের তথ্য দেখবেন কিভাবে?

ডোমেইনের মালিকানা সহ অন্যান্য তথ্য দেখতে who.is এ গিয়ে ডোমেইন লিখে সার্চ করুন। তখন Registrant Contact Information অপশনে মালিকের তথ্য দেখবেন। অথবা whois domain লিখে গুগলে সার্চ করে অন্য ওয়েব টুল গুলোর মাধ্যমেও চেক করতে পারবেন।

বিঃদ্রঃ ডোমেইনে প্রাইভেসি প্রোটেকশন চালু থাকলে Registrant Contact Information এ WhoisGuard Privacy, PrivacyProtect LLC বা অন্য কিছু বিষয় নাম ইমেইল এড্রেস এবং ঠিকানার জায়গায় দেখাবে। তখন ডোমেইন কন্ট্রোল প্যানেল থেকে Privacy Protection অফ করে নিতে হবে। তারপর যদি দেখেন আপনার তথ্য দেখায়, তাহলে মুটামুটি নিশ্চিত থাকতে পারবেন যে আপনার নামেই ডোমেইনটি রেজিস্টার্ড হয়েছে। তবুএ সার্ভিস প্রোভাইডারের সব ক্ষেত্রেই কিছুটা ক্ষমতা থেকেই যাবে। অর্থাৎ সে বিক্রি করতে পারবে, মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবে। কিন্ত প্রথম পরিবির্তনে আপনি ইমেইলে জানতে পারবেন যে অমুক বিষয়টা পরিবর্তিত হয়েছে।

আশা করি ইতমধ্যে আপনি বুঝে গিয়েছেন, ডোমেইন কোনো পন্য না। একেবারে কেনার কোনো সুযোগ নেই। তাই এমন প্রতিষ্ঠানকেই বেছে করতে হবে যারা বিশ্বাসযোগ্য এবং আপনাকে যুগের পর যুগ সেবা দিয়ে যাবে। কারণ এটা আপনার একটি আমানত। তাই কেউ ফ্রী দিলেও নেয়ার দরকার নাই। দরকার হলে একটু বেশী টাকা খরচ করে হলেও বিশ্বস্ত সার্ভিস প্রোভাইডারের কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশন করুন।

আমরা আপনাকে কিভাবে সহযোগীতা করতে পারি?

বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত কোম্পানি আইটি বন্ধু লিমিটেড মানসম্মত সেবার জন্য স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠান এবং তারকারাও আমাদের উপর আস্থা রাখে এবং সার্ভিস ব্যবহার করে। যেকোনো ধরণের ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েব হোস্টিং, ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন সহ অন্যান্য আইটি সেবার জন্য কল করুন আমাদের হটলাইন নাম্বারে: 01938001000

Call Now Button